“মোদী না থাকলে ভারতের পরিণতিও হবে আফগানিস্তানের মতো”, সোশ্যাল মিডিয়ার একের পর এক পোস্টে দাবি করলেন কঙ্গনা রানাওয়াত


বর্তমানে আফগানিস্থানে ইস্যু নিয়ে সরব গোটা বিশ্ব। কারণ এখন তালিবানদের দখলে চলে এসেছে আফগানিস্থান আর তাই কাতারে কাতারে মানুষ বিমানবন্দরে অপেক্ষা করছে। এমনকি বিমানে বাদুড়ের মতো ঝুলে দেশ ছেড়ে পালাতে চাইছে। পালাতে গিয়ে বেশ কয়েকজন বিমান থেকে পড়ে গিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। তবুও তালিবানদের অধীনে থাকার থেকে মৃত্যুবরণের শ্রেয় এমনটাই মনে করছেন সেখানকার বাসিন্দারা।তালিবানের প্রায় মহিলা শূন্য হয়ে পড়েছে এবং বাজারে বোরখা কেনার চাহিদা বেড়েছে বহুগুণ এ।

তাইতো যেমন করে হোক দেশ ছেড়ে পালাতে চাইছে সেদেশের বাসিন্দারা ।যদিও পাকিস্তান-চীন এরা কিন্তু তালিবানদের এই রাজত্বকে সরাসরি স্বীকৃতি দিয়েছে এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তিনিও তালিবানদের পক্ষে কথা বলেছেন। তবে এবার বলিউডের তারকারা যেমন তালিবান ইস্যুকে কেন্দ্র করে মুখ খুলেছেন, ঠিক সেভাবে বলিউডের সোজাসাপ্টা অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত নিজের মতো করে মতামত জানান।

কঙ্গনা রানাওয়াত যেকোনো ইস্যুকে কেন্দ্র করে মুখ করেন ঠিক সেভাবেই এবার তালিবান ইস্যুকে কেন্দ্র করে মুখ খুলে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ার পোষ্টের দাবি করেছেন নরেন্দ্র মোদির না থাকলে  সেক্ষেত্রে ভারতের অবস্থা আফগানিস্তানের মতই হবে।

সম্প্রতি আফগানিস্তানের এই ইস্যুকে কেন্দ্র করে ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে বেশ কয়েকটি পোস্ট করেছেন কঙ্গনা রানাওয়াত সেখানে তিনি দেখিয়েছেন কিভাবে আফগানিস্তানের মানুষ প্রাণ ভয়ে পালানোর জন্য বিমানে ওঠার চেষ্টা করেছে একই সঙ্গে তিনি এই পোষ্টটি লিখেছেন, ” এটা দেখুন আর মনে রাখবেন এই তালিবানদের প্রশ্ন করে পাকিস্তান আর আমেরিকা এদের অস্ত্র দেয় তালিবানরা এখন আপনার অনেক আছে এটা দেখুন, আগামীতে মোদী না থাকলে আপনিও এই জায়গায় থাকতে পারেন”।

যদিও তিনি এখানেই থেমে থাকেননি আফগানিস্তানের মানুষ কিভাবে প্রাণে বাঁচতে বাদুড়ের মতো চলন্ত বিমানে ঝুলে ঝুলে যেতে চাইছে এবং সেখান থেকে পড়ে দুই তিনজন মারা গেছে সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কঙ্গনা লিখেছেন, “জীবন যখন মৃত্যুর থেকেও খারাপ হয়ে যায়”,,একই সঙ্গে আরও একটি পোস্টে তিনি লিখেছেন,” আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি ভবনের ছবি এর থেকে আন্দাজ করতে পারি যে ইসলামিক যাযাবররা বহুবছর আগে কিভাবে সবচেয়ে সমৃদ্ধশালী দেশ ভারত মাতা কে দখল করেছিল”।

এক্ষেত্রে উল্লেখ্য যে ভাবে বর্তমানে তালিবানরা আফগানিস্থান দখল করেছে তাতে কিন্তু চিন্তার ভাঁজ পশ্চিমবাংলা রয়েছে এমনটাই মনে করছেন বিশেষজ্ঞ মহল।





Source link

Leave a Comment